অনলাইনে ‘ই-বৈশাখ’ উদযাপন করবে রাবির চারুকলা

নিজস্ব প্রতিবেদক

নিউজরাজশাহী.কম

প্রকাশিত : ০৯:৫০ পিএম, ১৩ এপ্রিল ২০২০ সোমবার

মরণঘাতী করোনা ভাইরাস সংক্রমণে উদ্ভুত পরিস্থিতিতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) চারুকলা অনুষদের শিক্ষার্থীরা অনলাইনে পহেলা বৈশাখের আয়োজন করেছে। তারা এর নাম দিয়েছে ‘ই-বৈশাখ-১৪২৭’। সূচি অনুযায়ী- পহেলা বৈশাখ দিনভর অনলাইনে নাচ, গান, আবৃত্তি, করোনা সচেতনতামূলক ফ্যাশন-শো হবে। ইউটিউব চ্যানেল- রেডিও চারুতে (Radio Charu) সরাসরি অনুষ্ঠান সম্প্রচারিত হবে।

সোমবার (১৩ এপ্রিল) বিকেলে অনুষ্ঠানের আহ্বায়ক চারুকলা অনুষদের সাবেক শিক্ষার্থী জনি মাহমুদের বরাত দিয়ে গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়- পহেলা বৈশাখ হলো বাঙালির প্রাণের উৎসব। প্রতিবছর দিনটি উপলক্ষে আমরা বর্ণাঢ্য আয়োজন করা হয়ে থাকে। কিন্তু এবার করোনা ভাইরাসের কারণে ক্যাম্পাস বন্ধ। ঘরের বাইরে বের হওয়াও সম্ভব নয়।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়- তবে পহেলা বৈশাখের প্রতি বাঙালির আবেগ ও আগ্রহের কথা বিবেচনা করে মানুষের সুস্থ বিনোদনের প্রয়োজন পূরণের  লক্ষ্যে তাদের এমন আয়োজন। অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীরা করোনাকালীন সংকটে সমাজের হতদরিদ্র, দরিদ্র এবং নিম্ন-মধ্যবিত্ত মানুষদের মাঝে বিরাজমান খাদ্য ও স্বাস্থ্য উপকরণ সংকটে তাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য ফান্ড গঠন করবেন।

ই-বৈশাখ উদযাপনে অনলাইনে যুক্ত হবেন যারা

আরও উল্লেখ করা হয়- অনলাইনে বাংলাদেশের সর্বপ্রথম দূরবর্তী নাটক ‘কমলাকান্তের জবানবন্দী’ ও ‘অবাক জলপান’ সম্প্রচার হবে। চারুকলার শিক্ষার্থীসহ, দেশের এবং দেশের বাইরের অন্যান্য বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের এবং বেশ কিছু দেশবরেণ্য মানুষের পাঠানো ভিডিও পারফর্ম প্রদর্শিত হবে।

এছাড়াও রাবির চারুকলা শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন শিল্পকর্মের ছবি নিয়ে একটি ‘অনলাইন শিল্প প্রদর্শনী’ অনুষ্ঠিত হবে। অনুষ্ঠানে একজন সরাসরি সঞ্চালক স্কাইপি ভিডিও কলে কিছু পারফর্ম এবং শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সাক্ষাৎকার নেবেন। যা সরাসরি প্রচারিত হবে।

জানতে চাইলে চারুকলা অনুষদের ডীন অধ্যাপক সিদ্ধার্থ শংকর তালুকদার বলেন, ‘বাঙালি জাতির প্রাণের উৎসব হচ্ছে পহেলা বৈশাখ। তবে দেশের পরিস্থিতি বিবেচনা করে প্রধানমন্ত্রী জনসমাগমপূর্ণ অনুষ্ঠান করতে নিষেধ করেছেন। তাই বাঙালি জাতির যে ঐতিহ্য, সেটি ধরে রাখতেই ক্ষুদ্র পরিসরে আমরা অনলাইনে এ আয়োজন করতে যাচ্ছি। অনুষ্ঠানে অনুষদের বিভিন্ন বিভাগের কয়েকজন শিক্ষক উপস্থিত থেকে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখবেন।’