ইতালি থেকে ফিরলেন বাংলাদেশিরা, ১২৬ জনকে নেওয়া হয়েছে হজ ক্যাম্পে

ডেস্ক নিউজ

নিউজরাজশাহী.কম

প্রকাশিত : ১২:১৭ পিএম, ১৪ মার্চ ২০২০ শনিবার | আপডেট: ১২:৩১ পিএম, ১৪ মার্চ ২০২০ শনিবার

ভয়াবহভাবে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত দেশ ইতালি থেকে শতাধিক বাংলাদেশি দেশে ফিরেছেন। আজ সকাল সাড়ে ৮টায় ১৪২ জন বাংলাদেশি শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করেন। ইতালির ভেনেতো রিজিওন থেকে ভেনিস এয়ারপোর্ট হয়ে এমিরাতের শেষ ফ্লাইট যোগে তারা বাংলাদেশে ফিরছেন বলে ইতালির গণমাধ্যম লিখেছে। তাদের দ্রুততার সাথে আশকোনা হজ ক্যাম্পে নেওয়া হয়েছে। 

জানা গেছে, ইতালি থেকে এমিরেটস এয়ারলাইন্সের ফ্লাইটে আসা ১২৬ জন যাত্রীকে কোয়ারেন্টাইনে রাখার জন্য হজ ক্যাম্পে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ১৪২ জন যাত্রী নিয়ে ঢাকা আসে এমিরেটসের আলোচিত সেই ফ্লাইটটি। ফ্লাইটের অন্যযাত্রীরা দুবাই থেকে ফ্লাইটে উঠেন।

বিমানবন্দর স্বাস্থ্য বিভাগের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. শাহরিয়ার সাজ্জাদ সকালে বলেন, সেই ফ্লাইটে ১৪২ জন যাত্রী ছিলেন। এরমধ্যে ১২৬ জন ইতালি থেকে এসেছেন। তাদের হজ ক্যাম্পে নিয়ে আসা হয়েছে।

এদিকে, হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন এএইচএম তৌহিদ-উল আহসান বলেন, ‘১৪২ জন যাত্রী নিয়ে এমিরেটসের (ইকে ৫৮২) ফ্লাইটটি সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ঢাকায় আসে। সেই ফ্লাইটে যাত্রীদের কোয়ারেন্টাইনে রাখা হবে কি হবে না, সে পদক্ষেপ নেবে বিমানবন্দরের স্বাস্থ্য বিভাগ।

এদিকে ফেসবুকে অনেকে আশঙ্কা ব্যক্ত করে লিখেছেন, ইতালিফেরত এই প্রবাসীদের কোয়ারেন্টাইন-এ নাও নেয়া হতে পারে। ইতিমধ্যে তারা দেশে এসে যার যার বাড়ির দিকে রওয়ানা দিয়েছেন এমনও দাবি করছেন কেউ কেউ।

 ‘লা নোভা’ গণমাধ্যম নিউজের সঙ্গে ভিডিও দিয়েছে। ভিডিওতে দেখা গেছে, যাত্রীরা বিমানে আরোহন করে বসেছেন। ইতালি ভাষায় লেখা প্রতিবেদনটিতে বলা হয়, বাংলাদেশিরা দুবাই হয়ে দেশে ফিরবেন।

এদিকে এ বিষয়ে কামরুল হাসান মামুন নামে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লিখেছেন, এবার যদি সত্যি সত্যি সরকার আন্তর্জাতিক মানের কোয়ারেন্টাইন না করে তাহলে ডিসেস্টর হওয়ার সম্ভবনা দেখছি। এটা খুব সিরিয়াস ব্যাপার।`

যোগাযোগ করা হলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক রাতে বলেন, ইতালিফেরত এই প্রবাসীরা যার যার বাড়ি চলে গেছেন বলে শোনা যাচ্ছে। তারা সম্ভবত পৌঁছাননি এ তথ্য দিলে তিনি বলেন, তাইলে তো আরো ভাল। কর্তৃপক্ষ গণমাধ্যম সূত্রে জেনে কোয়ারেন্টাইন এখন হয়তো নিশ্চিত করবে।

এর আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তিনি আরো বলেন, এই মানুষগুলার কি নিজেদের পরিবার পরিজনের প্রতি মায়া নাই? দেশের মানুষজনের প্রতি মায়া নাই। ওই রকম একটি উন্নত চিকিৎসার দেশ ছেড়ে ওখান থেকে করোনা ভাইরাস নিয়ে আসার কোন মানে হয়?