চারঘাটে চলছে অবৈধ পুকুর খনন, খননকারীদের হামলায় একজন আহত

আবুল কালাম আজাদ সনি, চারঘাট

নিউজরাজশাহী.কম

প্রকাশিত : ০৭:০১ পিএম, ৯ এপ্রিল ২০২০ বৃহস্পতিবার

রাজশাহীর চারঘাটে চলছে পুকুর খননের মহা উৎসব। এসব অবৈধ পুকুর খননের মাটি পরিবহনের কাজে ব্যবহার হচ্ছে অবৈধ ট্রাক্টর। ট্রাক্টরের দৌরাত্ম্যে বেহাল অবস্থা হয়েছে রাস্তা-ঘাটের। ট্রাক্টরের বিকট শব্দ আর ধুলাবালিতে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে জনজীবন।

আজ বৃহস্পতিবার ট্রাক্টরের কারনে জনদূর্ভোগ সৃষ্টি হওয়ায় এলাকাবাসী প্রতিবাদ করার কারনে পুকুর খননকারীদের হামলার শিকার হয়েছেন। এ ঘটনায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে একজন চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

রাজশাহীসহ সারাদেশের মানুষ যখন হোম কোয়রেন্টাইনে ঘরবন্দি, করোনা পরিস্থিতি সামাল দিতে প্রশাসনের যখন নাভিঃশ্বাস উঠে যাচ্ছে, ঠিক তখন চারঘাটে এক শ্রেণীর অসাধু ব্যাক্তি আবাদী জমি কেটে পুকুর বানানোর কাজে ব্যস্ত।

জানা যায়, চারঘাট উপজেলার সরদহ ইউনিয়নে সবচেয়ে বেশি পুকুর খনন চলছে। সরদহ ইউনিয়নের বিজোড় গ্রামে ইন্তাজ আলী তিন ফসলী জমিতে করছেন পুকুর খনন। তার পাশেই মুকুল আহমেদও তার তিন ফসলী জমিতে পুকুর খনন করছেন। ভেকু দিয়ে দিনে রাতে চলছে পুকুর খননের কাজ।

এছাড়াও ভায়ালক্ষীপুর ইউনিয়নের ফরিদপুর মোড়ের পাশে রেজাউল করিম নামে একজন পুকুর খনন করছেন। শলুয়া ইউনিয়নের বামনদীঘিতেও চলছে পুকুর খনন। সেখানে নন্দা বানিজ্যিক খামারের পাশে রবিউল ইসলাম নামের এক ব্যাক্তি পুকুর খনন করছেন।

এদিকে সরদহ ইউনিয়নের বথুয়াতে চলছে পুকুর খনন। ডাবলু নামের এক ব্যাক্তি এ পুকুর খনন করছেন। এ পুকুরের মাটি রাত দিন সব সময়ই ট্রাক্টরের মাধ্যমে বিভিন্ন জায়গায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। ট্রাক্টরের শব্দে অতিষ্ঠ আশে পাশের গ্রামবাসী।

বৃহস্পতিবার সকালে ঐ পুকুরের মাটি ট্রাক্টরে করে নিয়ে যাওয়ার সময় কয়েকজন গ্রামবাসী বাধা দেয়। এ সময় অবৈধ পুকুর খননকারীরা গ্রামবাসীর উপরে হামলা করে। এ ঘটনায় সোহেল রানা নামে একজন গুরুতর আহত হয়। তিনি বর্তমানে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

আহত সোহেল রানার বোন চৈতি খাতুন জানান, প্রতিনিয়তই ট্রাক্টরে করে বাড়ির পাশ দিয়ে মাটি নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। তাতে ট্রাক্টরের শব্দে বাড়িতে থাকা দায় হয়ে পড়েছে। একাধিকবার পুকুর খননকারীদের নিষেধ করলেও তারা শোনেনি। বৃহস্পতিবার সকালে তার ভাই সোহেলসহ কয়েকজন গ্রামবাসী ট্রাক্টর যেতে বাধা দিলে পুকুর খননকারীরা ক্ষিপ্ত হয়ে হাসুয়া দিয়ে আঘাত করে। এতে সোহেলের হাতের গুরুতর জখম হয়। তাকে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করে। এ বিষয়ে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

এ বিষয়ে চারঘাট মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ সমিত কুমার কুন্ডু বলেন, এ ঘটনায় একটা অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টা সুষ্ঠ তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

জানতে চাইলে চারঘাট উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আনিসুর রহমান বলেন, অবৈধ পুকুর খননের বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান চলমান আছে। ইতিমধ্যেই অভিযান চালিয়ে অনেক জায়গায় পুকুর খনন বন্ধ করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে।

স/এমএস