ছুটির দিনেও উপচে পড়া ভিড় রাজশাহীর আয়কর মেলায়

নিজস্ব প্রতিবেদক

নিউজরাজশাহী.কম

প্রকাশিত : ০৬:২৯ পিএম, ১৫ নভেম্বর ২০১৯ শুক্রবার

সাপ্তাহিক ছুটির দিনে শুক্রবার (১৫ নভেম্বর)। তবে তাতে কী, আয়কর দেওয়া ও সেবাগ্রহণ নিয়ে বলে কথা। তাই বন্ধের দিনও ভিড় বেড়েছে রাজশাহীতে চলা আয়কর মেলায়। নিজস্ব ভবন প্রাঙ্গণে সকাল থেকে আয় করদাতারা আসছেন মেলায়। আয়কর দেওয়া ও রিটার্ন দাখিলসহ বিভিন্ন সেবাগ্রহণ করছেন করদাতারা।

নির্ঝঞ্ঝাটভাবে হিসাব কষে আয়কর দেওয়ার পর মহানগরের হেলেনাবাদ এলাকার ব্যবসায়ী জমশেদ আলী বলেন, সাধারণত অন্য সময় কর দেওয়াটা একটু ঝামেলা মনে হয়। মেলায় এলে বাড়তি সুবিধা পাওয়া যায়। আয়কর কর্মকর্তারা বিশেষ সেবা দিয়ে থাকেন। তাতে অন্য যেকোনো সময়ের চেয়ে সহজে আয়কর দেওয়া যায়। তাই তিনি মেলায় এসে কর দিতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন বলেও জমশেদ।

কেবল সাইফুল ও জমশেদ নন, মেলায় আগত এমন অনেক সেবাগ্রহীতার বক্তব্য প্রায় একই। রাজশাহীতে চলমান সপ্তাহব্যাপী এ আয়কর মেলায় শুধু কর দেওয়া ও অধিক্ষেত্র জানা নয়, সেবাগ্রহীতারা রিটার্ন দাখিল ও অনলাইন কর শনাক্তকরণ নম্বর (ই-টিআইএন) সনদ সংগ্রহসহ বিভিন্ন ধরনের সেবা পাচ্ছেন।

রাজশাহী আয়কর মেলার প্রথম দিন বৃহস্পতিবার (১৪ নভেম্বর) এক কোটি ২৭ লাখ চার হাজার ৩৮৭ টাকা আয়কর আদায় হয়েছে। মেলার প্রথম দিনে সেবাগ্রহীতা ছিলেন তিন হাজার ৫শ’ জন।

কর অঞ্চল রাজশাহীর উপ-কর কমিশনার (সদর দফতর-প্রশাসন) আবু নসর মো. মাহবুবুজ্জামান জানান, বৃহস্পতিবার মেলার প্রথম দিন এক হাজার ৪৮৮টি আয়কর রিটার্ন দাখিল হয়েছে। মেলায় আয়কর আদায় হয়েছে এক কোটি ২৭ লাখ চার হাজার ৩৮৭ টাকা।

তিনি বলেন, প্রথমদিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত উৎসবমুখর পরিবেশে করদাতারা আয়কর রিটার্ন দাখিল করেন। মেলা প্রাঙ্গণে আয়কর রিটার্ন পূরণ পরামর্শ ডেস্ক, ফটোকপি সুবিধা, ব্যাংক বুথ সেবা ও ই-পেমেন্ট সেবাসহ ওয়ান স্টপ সার্ভিস পাওয়া যাচ্ছে।

জানতে চাইলে তিনি বলেন, রাজশাহী অঞ্চলে আয়কর আদায়ের পরিমাণ বেড়েছে। গত ২০১৪-১৫ অর্থবছরে রাজশাহী কর অঞ্চলে আয়কর আদায় হয়েছিল প্রায় ৩২১ কোটি ৬৬ লাখ টাকা। আয়কর আদায়ের এ পরিমাণ পাঁচ বছরে দ্বিগুণেরও বেশি বেড়েছে।

সর্বশেষ ২০১৮-১৯ অর্থবছরে প্রায় ৭৪১ কোটি টাকা আয়কর আদায় হয়েছে। একই সময়ে বেড়েছে করদাতার সংখ্যাও। তাই আয়কর বাড়ার এ ধারা অব্যাহত রাখতে চায় রাজশাহী কর অঞ্চল। এবার রেকর্ড পরিমাণ কর আদায় হবে বলেও প্রত্যাশা করেন রাজশাহীর উপ-কর কমিশনার মাহবুবুজ্জামান।

করদাতাদের উদ্বুদ্ধ করতে এবং কর ও আয়কর রিটার্ন জমা নিতে এ মেলা চলবে আগামী ২০ নভেম্বর পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত করদাতারা রিটার্ন জমা দিতে পারেছেন। নতুন করদাতারা পাচ্ছেন ই-টিআইএন সনদ।

আয়কর মেলায় আয়করদাতারা তাদের রিটার্ন দাখিল ও ই-রেজিস্ট্রেশন করতে পারছেন। কর মেলায় আগতরা সহজেই আয়কর অধিক্ষেত্র জানতে পারছেন। আয়করদাতাদের রিটার্ন ফরম পূরণে সহযোগিতা করা হচ্ছে। ব্যাংক বুথে আয়কর জমা দেওয়া যাচ্ছে। মুক্তিযোদ্ধা, নারী ও প্রতিবন্ধী করদাতার জন্য রয়েছে আলাদা ব্যবস্থা।