নওগাঁয় ‘আমার বাড়ি আমার খামার প্রকল্পে’ সুফল পায় ৭০ হাজার পরিবার

নিজস্ব প্রতিবেদক

নিউজরাজশাহী.কম

প্রকাশিত : ১১:২০ এএম, ৮ মার্চ ২০২০ রবিবার

আমার বাড়ি আমার খামার প্রকল্পের আওতায় নওগাঁয় এ পর্যন্ত মোট এক হাজার ৬৪৯টি সমিতি গঠিত হয়েছে। এসব সমিতির মোট সদস্য সংখ্যা ৬৭ হাজার ৬৭৫ জন। প্রকল্পে সদস্যদের মোট সঞ্চিত অর্থের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ২২ কোটি ১২ লাখ ১২ হাজার টাকা। এই সঞ্চয়ের সঙ্গে সরকার প্রদান করেছে ৫৪ কোটি ২১ লাখ ১৯ হাজার টাকা। সব মিলিয়ে নওগাঁ জেলায় এই প্রকল্পে মোট পুঁজির পরিমাণ হচ্ছে ৭৭ কোটি ২৮ লাখ ৩৩ হাজার টাকা। আমার বাড়ি আমার খামার প্রকল্পের নওগাঁ জেলার সমন্বয়কারী পল্লব কুমার সরকার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তার দেয়া তথ্য মোতাবেক উপজেলাভিত্তিক সমিতি, সদস্য সংখ্যা, সদস্যদের সঞ্চয় এবং সরকারের দেয়া অর্থের পরিমাণ হচ্ছে নওগাঁ সদর উপজেলায় ১৫১টি সমিতির মোট পাঁচ হাজার ৫০৭ জন সদস্যের সঞ্চিত অর্থ এক কোটি ৭৩ লাখ ৪১ হাজার টাকা। সরকারের দেয়া অর্থ পাঁচ কোটি ২৯ লাখ টাকাসহ সর্বমোট পুঁজির পরিমাণ সাত কোটি ১২ লাখ ১৭ হাজার টাকা।

মহাদেবপুর উপজেলায় ১৭৫টি সমিতির মোট নয় হাজার ৫৭৭ জন সদস্যের সঞ্চিত অর্থ দুই কোটি ৮৯ লাখ ৭০ হাজার টাকা এবং সরকারের দেয়া অর্থ ছয় কোটি ৩৭ লাখ ৭৮ হাজার টাকাসহ সর্বমোট পুঁজির পরিমাণ নয় কোটি ৩৭ লাখ ৩২ হাজার টাকা।

বদলগাছি উপজেলায় ১৫৬টি সমিতির মোট চার হাজার ৬৩৬ জন সদস্যের সঞ্চিত অর্থ এক কোটি ৪০ লাখ ৭৮ হাজার টাকা এবং সরকারের দেয়া অর্থ চার কোটি ১০ লাখ ১২ হাজার টাকাসহ সর্বমোট পুঁজির পরিমাণ পাঁচ কোটি ৫৮ লাখ তিন হাজার টাকা।

পত্নীতলা উপজেলায় ১৫৭টি সমিতির মোট ছয় হাজার ৬৯৩ জন সদস্যের সঞ্চিত অর্থ দুই কোটি ২২ লাখ ৯৪ হজার টাকা এবং সরকারের দেয়া অর্থ পাঁচ কোটি ২০ লাখ ৮৮ হাজার টাকাসহ সর্বমোট পুঁজির পরিমাণ সাত কোটি ৫৫ লাখ ৪৫ হাজার টাকা।

ধামইরহাট উপজেলায় ১৩৯টি সমিতির পাঁচ হাজার ৬৭৩ জন সদস্যের সঞ্চিত অর্থ দুই কোটি ১২ লাখ টাকা এবং সরকারের দেয়া অর্থ চার কোটি ৮০ লাখ ২৪ হাজার টাকাসহ সর্বমোট পুঁজির পরিমাণ সাত কোটি দুই লাখ ৫৬ হাজার টাকা।

নিয়ামতপুর উপজেলায় ১৪১টি সমিতির ছয় হাজার ৫১৫ জন সদস্যের সঞ্চিত অর্থ এক কোটি ৮৯ লাখ ১৯ হাজার টাকা এবং সরকারের দেয়া চার কোটি ৭৭ লাখ ৪৫ হাজার টাকাসহ সর্বমোট পুঁজির পরিমাণ ছয় কোটি ৭৩ লাখ ৭৬ হাজার টাকা।

মান্দা উপজেলায় ২৫৮টি সমিতির ১১ হাজার ২৯৮ জন সদস্যের সঞ্চিত অর্থ তিন কোটি ৭২ লাখ ৯২ হাজার টাকা এবং সরকারের দেয়া আট কোটি ৪৬ লাখ ৪৩ হাজার টাকাসহ সর্বমোট পুঁজির পরিমাণ ১২ কোটি ৩২ লাখ ৭৪ হাজার টাকা।

আত্রাই উপজেলায় ১৩৬টি সমিতির চার হাজার ৭০৭ জন সদস্যের সঞ্চিত অর্থ এক কোটি ৫৭ লাখ ১৪ হাজার টাকা এবং সরকারের দেয়া চার কোটি ৩৫ লাখ ৫৩ হাজার টাকাসহ মোট পুঁজির পরিমাণ ছয় কোটি ২১ হাজার টাকা।

রাণীনগর উপজেলায় ১৩৮টি সমিতির চার হাজার ১৬৮ জন সদস্যের সঞ্চিত অর্থ এক কোটি ২৪ লাখ ৫৫ হাজার টাকা এবং সরকারের দেয়া তিন কোটি ৪৩ লাখ ৯০ হাজার টাকাসহ সর্বমোট পুঁজির পরিমাণ চার কোটি ৭৫ লাখ ৭৬ হাজার টাকা।

পোরশা উপজেলায় ৯৯টি সমিতির চার হাজার ১৩৭ জন সদস্যের সঞ্চিত অর্থ এক কোটি ৪৫ লাখ ৩৭ হাজার টাকা এবং সরকারের দেয়া তিন কোটি ৫৫ লাখ ১৮ হাজার টাকাসহ সর্বমোট পুঁজির পরিমাণ পাঁচ কোটি ছয় লাখ আট হাজার টাকা।

সাপাহার উপজেলায় ৯৯টি সমিতির চার হাজার ৭৬৪ জন সদস্যের সঞ্চিত অর্থ এক কোটি ৮৩ লাখ ২৭ হাজার টাকা এবং সরকারের দেয়া তিন কোটি ৮৪ লাখ ৬২ হাজার টাকাসহ সর্বমোট পুঁজির পরিমাণ পাঁচ কোটি ৭৪ লাখ ২৫ হাজার টাকা।

নওগাঁ জেলা প্রশাসক হারুন-অর-রশীদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ ১০টি উদ্যোগের মধ্যে আমার বাড়ি আমার খামার প্রকল্প অত্যন্ত সময়োপযোগী এবং তাৎপর্যপূর্ণ একটি উদ্যোগ। এই প্রকল্পের মাধ্যমে জেলায় প্রায় ৭০ হাজার পরিবারের আর্থসামাজিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। এই প্রকল্পের মাধ্যমে দেশ থেকে দরিদ্রতা দূরীভূত হয়ে একটি সমৃদ্ধ বাংলাদেশ আমাদের দ্বারপ্রান্তে এসে দাঁড়িয়েছে।