নলডাঙ্গায় মাদক ব্যবসায় বাধা দেওয়ায় সংঘর্ষে আহত ৫

নিজস্ব প্রতিবেদক

নিউজরাজশাহী.কম

প্রকাশিত : ০৭:৩৮ পিএম, ৫ মে ২০২০ মঙ্গলবার

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

মাদক ব্যবসা বাধা দেওয়ায় নাটোরের নলডাঙ্গায় দুই পক্ষের সংঘর্ষে অন্তত ৫ জন আহত হয়েছে। এর মধ্যে গুরুতর আহত মুক্তা নামের এক চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী গুরুতর আহত হয়েছে। মুক্তাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৬ টার দিকে উপজেলার চেউখালি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহত মুক্তা(৪০) উপজেলার চেউখালি গ্রামের মুজিবুর রহমানের ছেলে।

নলডাঙ্গা থানা পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সকালে উপজেলার চেউখালি গ্রামের বট তলায় মাদক ব্যবসায়ী মুক্তাকে মাদক বিক্রয় করা নিয়ে প্রতিবাদ করেন স্থানীয় ওর্যাড আওয়ামী লীগের নেতা সাঈদ ও তার ভাইয়েরা। এ সময় দুই পক্ষের কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে সংঘর্ষে রূপ নেয়। এতে মাদক ব্যবসায়ী মুক্তাসহ তার বাবা মুজিবুর রহমান ও স্ত্রী আহত হয়। অপর দিকে আওয়ামী লীগ নেতা সাঈদসহ তার পরিবারের আরও দুই জন আহত হয়। স্থানীয়রা গুরুতর আহতদের উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।

এর দুই দিন আগে মাদক বিক্রয় নিষেধ করায় মাধনগর কাজিপাড়ার গ্রামের ওর্য়াড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাঈদ হোসেনের ছোট ভাই শাজাহান আলীকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায় মুক্তা’র আরেক সহযোগী, মাদক বিক্রেতা সেলিম। এ নিয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়। এর জের ধরেই আজকের এই সংঘর্ষ বলে ধারনা করা হচ্ছে।

এ ব্যাপারে নলডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম জানান, সকালে লাঠিসোটা নিয়ে চেউখালি গ্রামে মারামারি হয়েছে। মুক্তা নামের একজন গুরুতর আহত হয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। এ ঘটনায় দোষীদের আইনের আওতায় আনা হবে বলে জানান ওসি নজরুল।