বাল্যবিয়ে থেকে বাঁচতে খুন-গুমের নাটক

নিউজ রাজশাহী ডেস্ক

নিউজ রাজশাহী.কম

প্রকাশিত : ০১:৩০ পিএম, ৭ অক্টোবর ২০১৮ রবিবার

পটুয়াখালীর কলাপাড়ার পূর্ব আলীপুর গ্রামের নবম শ্রেণির ছাত্রী মরিয়ম আক্তারকে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে খালাতো ভাইয়ের সঙ্গে বিয়ের জন্য চাপ দেয় পরিবার। এ বাল্যবিয়ে থেকে নিজেকে বাঁচাতে ১৮ সেপ্টেম্বর গভীর রাতে মরিয়ম গৃহপালিত একটি রাজহাঁসের হাত-পা বেঁধে জবাই করে এবং দুই টুকরো মাংস পুকুর থেকে ধুয়ে ঘরের মেঝেতে রেখে বাকি মাংস ফেলে দেয়।

সকালে তার মা নুরজাহান বেগম মেয়েকে না দেখে খুঁজতে বের হতেই ঘরের মধ্যে ছোপ ছোপ রক্ত, তার পায়ের নূপুর, দুই টুকরো মাংস, রক্তমাখা দু`টি ছুরি মেঝেতে দেখতে পান। সবাই ধারণা করছিল, মরিয়মকে খুনের পর লাশ গুম করেছে দুর্বৃত্তরা। ওই রাতেই বাড়ি থেকে কলাপাড়া পৌঁছে পরদিন ঈগল পরিবহনের একটি বাসে করে ঢাকায় চলে যায় মরিয়ম।

সেখানে এক আত্মীয়ের সহায়তায় রুনা ফ্যাশনে চাকরি নেয়। ঘটনার ১৭ দিন পর শুক্রবার ঢাকা থেকে মরিয়মকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার রাতে ঢাকার মুগদা থানাধীন মদিনাবাগ এলাকার খালপাড় রোডের রুনা ফ্যাশন নামে একটি পোশাক কারখানা থেকে কর্মরত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করা হয়।

শনিবার দুপুরে পটুয়াখালীর পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মইনুল হাসান সংবাদ সম্মেলন করে ঘটনার রহস্য উদঘাটনের করে এই বর্ণনা দেন।

এর আগে মরিয়মকে হত্যা করে লাশ গুম করা হয়েছিল বলে ধারণা করেছিল পুলিশসহ এলাকাবাসী। ওই ঘটনায় মরিয়মের মা নুরজাহান বেগম বাদী হয়ে গত ২০ সেপ্টেম্বর মহিপুর থানায় একটি হত্যা মামলাও করেছিলেন। মামলা দায়েরের পর পুলিশ প্রকৃত ঘটনা উদঘাটনের জন্য মাঠে নামে। এরই ধারাবাহিকতায় পুলিশ একটি মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে মরিয়মকে ঢাকা থেকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়।

সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মইনুল হাসান জানান, গত ১৮ সেপ্টেম্বর রাতে কলাপাড়া উপজেলার পূর্ব আলীপুর গ্রামের মৃত বাবুল মল্লিকের ছোট মেয়ে মরিয়ম ঘুমন্ত অবস্থায় নিখোঁজ হয়। পরদিন ভোরে ঘরের মেঝে ও বারান্দায় রক্ত, মাংসের দুটি টুকরো, রক্তমাখা ছুরি, চাকু, কাঁচি, ব্লেড, নূপুর ও ওড়না উদ্ধার করা হয়। এতে পুলিশ ও সংবাদকর্মীসহ এলাকাবাসী ধারণা করেছিল মরিয়মকে হত্যা করে লাশ গুম করা হয়েছে।

পুলিশ সুপার আরও জানান, মরিয়ম কারও সহায়তা ছাড়াই এই চাঞ্চল্যকর ও দুঃসাহসিক পরিকল্পনা করেছে। আগামীকাল রোববার আদালতে তার ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি রেকর্ড করা হবে।

স/সায়েম