‘রংপুরের পাবলিক প্লেসে ধূমপান বন্ধে পদক্ষেপ নেয়া হবে’

নিজস্ব প্রতিবেদক

নিউজরাজশাহী.কম

প্রকাশিত : ০৫:৩০ পিএম, ১১ মার্চ ২০২০ বুধবার | আপডেট: ০৫:৩১ পিএম, ১১ মার্চ ২০২০ বুধবার

‘সকল ধরনের সকরারি অফিসে ধূমপান সম্পর্কিত সতর্কীকরণ সাইনেজ স্থাপনের ব্যাপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে। এছাড়া সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, হাসপাতাল-ক্লিনিক ও রেস্টুরেন্টের সংশ্লিষ্টদের সাথে আলোচনা করে ধূমপানবিরোধী সাইনেজ নিশ্চিত করা হবে। আমরা অনেক আগে থেকেই পাবলিক প্লেসে বিশেষ করে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের আশেপাশে তামাকপণ্য বিক্রি বন্ধে পদক্ষেপ নিয়েছি। কাজেই তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন বাস্তবায়নে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ রংপুরের পাবলিক প্লেসে ধূমপান বন্ধে মোবাইল কোর্ট পরিচালনাসহ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে।’  

গতকাল বুধবার (১১ মার্চ) সকালে রংপুর জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে ‘রংপুর শহরের পাবলিক প্লেসে তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন বাস্তবায়নের বর্তমান অবস্থা যাচাই’ শীর্ষক জরিপের ফলাফল প্রকাশ ও মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক (ডিসি) আসিব আহসান এসব কথা বলেন।

জেলা প্রশাসক বলেন, ‘সচেতনতা সৃষ্টির জন্য সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারি, রেস্টুরেন্ট মালিক সমিতি, পরিবহন সেক্টরের নেতৃবৃন্দ, প্রাথমিক ও উচ্চ শিক্ষার কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্ট সকলের সঙ্গে উদ্বুদ্ধকরণ সভা অব্যাহত রাখতে হবে। কেননা- পাবলিক প্লেস ও পাবলিক পরিবহন পুরোপুরি ধূমপানমুক্ত করার জন্য জনগণের সচেতনতা ও অংশগ্রহণ জরুরি। 

উন্নয়ন ও মানবাধিকার সংস্থা ‘এ্যাসোসিয়েশন ফর কম্যুনিটি ডেভেলপমেন্ট-এসিডি’র তত্ত্বাবধানে ২০১৯ সালের জুন-সেপ্টেম্বর মাসে এই জরিপটি পরিচালিত হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতেই জেলা প্রশাসক বেসলাইন জরিপের তথ্যচিত্রের মোড়ক উন্মোচন করেন। পরে জরিপের ফলাফল উপস্থাপন করেন এসিডির এডভোকেসি অফিসার শরিফুল ইসলাম শামীম। 

রংপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আরাফাত রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন- রংপুরের সিভিল সার্জন ডা. হিরম্ব কুমার রায়।

এসময় শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন- এসিডির ডিরেক্টর (প্রোগ্রাম) শামরিমন সুবরীনা।

মতবিনিময় সভায় অন্যদের মধ্যে রংপুর চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্টিজের পরিচালক পার্থ বোস, বাংলাদেশ মেডিক্যাল এ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) রংপুরের সভাপতি ডা. দেলোয়ার হোসেন, সহকারি জেলা শিক্ষা অফিসার শাহরিনা দিলরুবা, বিআরটিএ রংপুর সার্কেলের সহকারি পরিচালক ফারুক আলম, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারি পরিচালক আফসানা পারভীন, রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. কারিবুল হাসান, রংপুর রেস্টুরেন্ট মালিক সমিতির সভাপতি আব্দুল মজিদ খোকন, ‘এন্টি টোব্যাকো মিডিয়া এলায়েন্স-আত্মা’র রংপুর বিভাগীয় সমন্বয়ক মাহবুবুল ইসলাম, রংপুর তামাক নিয়ন্ত্রণ কোয়ালিশনের ফোকাল পার্সন সুশান্ত ভৌমিক, সদস্য আহসান হাবীব রবু, ক্যাম্পেইন ফর টোব্যাকো ফ্রি কিড্স-সিটিএফকে’র প্রোগ্রাম অফিসার আতাউর রহমান মাসুদ, রংপুর হাইপার টেনশন এন্ড রিসার্চ সেন্টারের সিইও আনোয়ার হোসেন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।  

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, এসিডির তত্ত্বাবধানে রংপুর শহরের পাবলিক প্লেসে ‘ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার (নিয়ন্ত্রণ) আইন বাস্তবায়নের বর্তমান অবস্থার যাচাইয়ের জন্য ‘ক্রস সেকশনাল’ পদ্ধতিতে একটি জরিপ পরিচালিত হয়। রংপুর শহরের মোট ৮১২টি পাবলিক প্লেস (১৫৬টি সরকারি অফিস, ১০৮টি স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র, ১২৭টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং ৪২১টি রেস্টুরেন্টে) দ্বৈবচয়নের ভিত্তিতে নির্বাচন করে এই জরিপটি পরিচালনা করা হয়। জরিপে শহরের ৯৬% সরকারি অফিসে, ৯৯% শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে, ৯১% স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রে এবং ৯৬% রেস্টুরেন্টে তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন লঙ্ঘনের চিত্র উঠে এসেছে, যা অত্যন্ত উদ্বেগজনক।   

সভায় বক্তারা তামাক নিয়ন্ত্রণ আইনের অধিকতর বাস্তবায়নে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানান এবং তারা নিজ নিজ অবস্থান থেকে তামাক নিয়ন্ত্রণে ভূমিকা রাখার অঙ্গিকার ব্যক্ত করেন। জরিপের বিস্তারিত ফলাফল আগামী রবিবার (১৫ মার্চ ২০২০) সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে তুলে ধরা হবে বলেও এসিডির পক্ষ থেকে জানানো হয়। 

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে এসিডির তামাক নিয়ন্ত্রণ প্রকল্পের প্রোগ্রাম ম্যানেজার মোস্তফা কামাল, রংপুরের দায়িত্বপ্রাপ্ত এডভোকেসি অফিসার আনোয়ারুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

স/এমএস