রাজনীতি বাদ দিয়ে বাসায় বোরকা পরে থাকেন: বিএনপি নেত্রী টুকটকি

নিজস্ব প্রতিবেদক

নিউজরাজশাহী.কম

প্রকাশিত : ০৬:৫৭ পিএম, ৬ নভেম্বর ২০১৯ বুধবার

রাজশাহী জেলা বিএনপি মহিলা দলের নব-কমিটিকে বাসায় বোরকা ও চুরি পড়ে বসে থাকতে বললেন পদবঞ্চিত সাবেক সভাপতি। এই কমিটি নিয়ে নানা প্রশ্ন তুলেছে পদবঞ্চিতরা। আজ বুধবার সকালে বিগত কমিটির সাবেক সভাপতি রোকসানা বেগম টুকটুকি একটি সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ অভিযোগ গুলো তোলেন।

এর আগে চলতি মাসের গত ৩ নভেম্বর জাতীয়তাবাদী মহিলা দল কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আফরো আব্বাস ও সাধারণ সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ স্বাক্ষরিত কমিটির অনুমোদন দেওয়া হয়। কমিটি প্রকাশের পরে রাজশাহী জেলা মহিলাদলের মধ্যে নানা গুঞ্জন শুরু হয়।

সাবেক সভাপতি রোকসানা বেগম টুকটুকি বলেন, কমিটিতে ঠাই হয়নি ত্যাগী নেতা-কর্মীদের। যারা বিভিন্ন আন্দোলনের সময় পুলিশের তাড়া, হামলা ও নির্যাতনের শিকার হয়েছে তাদের স্থান হয়নি কমিটিতে। এছাড়া আন্দোলন সংগ্রামের সময় ঘরে বসে থাকা নেত্রীরাই এই কমিটিতে রয়েছে বিভিন্ন পদে। যদিও কোন আন্দোলনে তাদের ভূমিকা লক্ষ্য করা যায়নি।

তিনি আরো বলেন, দেশের সব জায়গায় যখন গণতান্ত্রিক উপায়ে কমিটি গঠন করা হচ্ছে। তবে রাজশাহীর এই অ্যাডহক কমিটি মহিলা দলের রাজনীতি শেষ করে দিয়েছে। নেতা-নেত্রীদের পছন্দের লোক দিয়ে কমিটি সাজিয়েছে। এই কমিটি বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও তারেক রহমানকে দেশে ফেরার পথ বন্ধ করে দিয়েছে। এই কমিটিকে পদত্যাগ করা উচিত।

এছাড়া বিগত কমিটির বিষয়ে তিনি বলেন, ‘রাজশাহী জেলা মহিলা দল বিগত আন্দোলন সংগ্রামে কি করে নাই? এখন পর্যন্ত সকল কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করছে। এই কমিটিতে সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ যে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে তারা মহিলা দলের সদস্য ছিলেন না। তারা সবাই দুই থেকে তিন বছর যাবৎ রাজনীতিতে যুক্ত হয়েছে। নতুন কমিটিতে বিলুপ্ত কমিটির এক নম্বর সহ-সভাপতি রিনা ইসলাম ছাড়া কারো স্থান হয়নি।’

এ বিষয়ে জাতীয়তাবাদী মহিলা দল কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ বলেন, ‘জেলা সভাপতি সাধারণ সম্পাদক যে কমিটি পাঠিয়েছে। তাই অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। টুকটুকি প্রায় ১০ বছর আগের আহবায়ক কমিটির সভাপতি ছিলে। কিন্তু তিনি দায়িত্ব নিয়ে কোন কার্যক্রম পালন করেনি।’

তিনি আরো বলেন, ‘দেশের বিভিন্ন এলাকায় সম্মেলনের মাধ্যমে কমিটি করা হয়েছে। সেখানে ত্যাগিদের প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে।’