রাবিতে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ পালিত

নিজস্ব প্রতিবেদক

নিউজরাজশাহী.কম

প্রকাশিত : ০৭:৩৭ পিএম, ৭ মার্চ ২০২০ শনিবার

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমনের ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উপলক্ষে আনান্দ র‌্যালি করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। শনিবার সকালে র‌্যালিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে কাজি নজরুল ইসলাম মিলনায়তনে এসে এক আলোচনা সভায় মিলিত হয়।

আলোচনা সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এম আব্দুস সোবহান বলেন, পাকিস্তানিরা প্রথম আমাদের মাতৃভাষা কেড়ে নেওয়ার মাধ্যমে আমাদের দাবানোর চেষ্টা করে ছিল। বঙ্গবন্ধুর করণে আজ পাকিস্তানসহ বিশ্বের ১৯০টি দেশ এক সাথে পালন করে ২১শে ফেব্রুয়ারিকে মাতৃভাষা দিবস হিসেবে। বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ বিশ্লেষণ করলে দেখা যাবে তিনি কোনো সেখান থেকে হাজার হাজার গবেষণা , হাজার হাজার পিএইডি পাওয়া যাবে।

এসময় তিনি আরো বলেন, ৭ই মার্চের ভাষনের পর বঙ্গবন্ধুকে আখ্যা দেওয়া হয়েছিল পয়েট অব পলিটিক্স। বঙ্গবন্ধুর লেখা অসংখ্য বই বিশ্লেষণ করলে দেখা যাবে যে তিনি কোনো সাহিত্যিকের থেকে কম ছিলেন না। সাহিত্যিকদের ভাষার যে হৃদয় নিংড়ানো ব্যবহার তার জীবনীতেও তা পাওয়া যায়। বঙ্গবন্ধু সবসময় গণতন্ত্রর পথে অগ্রসর হয়েছেন। কারণ তিনি জানতেন গণতন্ত্রের সাথে না চললে মানুষ আমাকে দোষারপ করবে, বিশ্ব আমাকে দোষারোপ করবে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের ছিটেফোটাও যদি আমরা হৃদয়ে ধরণ করতো পারি এবং তার সামান্যটুকু বস্তবায়নের চেষ্টা করি তাহলেও দেশের উন্নতি হবে।

শহীদ সুখরঞ্জন সমাদ্দার ছাত্র-শিক্ষক সংস্কৃত কেন্দ্রের পরিচালক অধ্যাপক হাসিবুল আলম প্রধান’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সভাপত্বি করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা। পরে ঐতিহাসিক ০৭ই মার্চের ভাষণে উপর বক্তৃতা প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরষ্কার বিতরণ করা হয়।

অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয় আরেক উপ-উপাচার্য অধ্যাপক চৌধুরী মো.জাকারিয়া, ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক লায়লা আরজুমান বানু, প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমানসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের পাঁচশতাধিক শিক্ষক-শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

এন/কে