ইউজিসি টিমকে রাবিতে এসে তদন্ত করার দাবি ‘সচেতন নাগরিকবৃন্দ’র

নিজস্ব প্রতিবেদক

নিউজরাজশাহী.কম

প্রকাশিত : ০৩:২১ পিএম, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ বুধবার

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম আব্দুস সোবহানের বিরুদ্ধে ‘অনিয়ম ও দুর্নীতি’র শুনানি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে এসে সম্পন্ন করার দাবি জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় সংশ্লিষ্ট ‘সচেতন নাগরিকবৃন্দ’।

আজ বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ‘রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সচেতন নাগরিকবৃন্দ’ ব্যানারে এক বিবৃতির মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) গঠিত তদন্ত কমিটিকে এ আহ্বান জানান।

বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়- ‘বর্তমানে করোনাভাইরাসের কারণে দেশে এক ধরনের অচলাবস্থা বিরাজ করছে। দীর্ঘ লকডাউনের পর অফিস-আদালত সীমিত পরিসরে খুললেও সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানই এখন পর্যন্ত বন্ধ রয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে উত্তরবঙ্গের শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপীঠ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান কর্ণধার উপাচার্য অধ্যাপক আব্দুস সোবহানকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মঞ্জুরি কমিশনে (ইউজিসি) গণশুনানিতে হাজির হওয়ার জন্য পত্র দেয়া হয়েছে। ইতোপূর্বেও এই বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক উপাচার্যের বিরুদ্ধে অভিযোগ আমরা শুনেছি, পত্র-পত্রিকায় দেখেছি এবং তদন্তও হয়েছে। কিন্তু গণশুনানির কথা আমরা কখনও শুনি নাই। ইউজিসির এই পদক্ষেপ উপাচার্যের অসম্মান তথা বিশ্ববিদ্যালয়ের সংশ্লিষ্ট সকলের অসম্মান।’

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ‘ইউজিসি কর্তৃক গঠিত কমিটির নিকট বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যকে উপস্থিত হতে হবে এটা বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনায় প্রণীত ১৯৭৩ সালের এ্যাক্ট পারমিট করে কিনা আমাদের বোধগম্য নয়। আমরা বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সচেতন নাগরিকবৃন্দ জানি বর্তমান উপাচার্য একজন সহজ, সরল ও নিরঅহংকার ব্যক্তি। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড সকলকে সাথে নিয়েই তিনি সম্পাদন করছেন। কিছু কুচক্রী মহল ব্যক্তিগত স্বার্থ চরিতার্থে ব্যর্থ হয়ে নোংরা রাজনীতির আশ্রয় নিয়েছে।’

তারা আরও উল্লেখ করেন, ‘উপাচার্য মহোদয়ও ইউজিসির তদন্তকে স্বাগত জানিয়েছেন। তবে সেই তদন্ত অবশ্যই বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে করতে হবে। আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের সচেতন ব্যক্তিবর্গ ইউজিসি ককর্তৃপক্ষের নিকট আবেদন করছি- বর্তমান উপাচার্যের বিরুদ্ধে অভিযোগ থাকলে বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে তদন্ত করা হউক।’

এর আগে গত ৩ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজ’ এর আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মজিবুর রহমানও বিজ্ঞপ্তি দিয়ে তদন্ত টিমকে বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে শুনানি করার আহ্বান জানান।

উল্লেখ্য, গত ১৭ আগস্ট ইউজিসির জেনারেল সার্ভিসেস অ্যান্ড এস্টেট ডিভিশনের সিনিয়র সহকারী পরিচালক গোলাম দস্তগীর স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে গণশুনানির বিষয়টি জানানো হয়। আগামীকাল থেকে ঢাকায় ইউজিসি’র অডিটেরিয়ামে গণশুনানি হওয়ার কথা রয়েছে। ত্রি-পক্ষীয় এ গণশুনানি আহ্বানের পর থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের বড় একটি অংশ ইউজিসি’র তদন্ত কমিটি ও গণশুনানির পুরো প্রক্রিয়া ৭৩’র অধ্যাদেশ পরিপন্থী বলে অভিযোগ করছেন।

তারা দাবি করছেন- তদন্ত কমিটির সদস্যরা বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে তদন্ত করাটাই যুক্তিযুক্ত।

স/এনআর/এমএস