দুর্গাপুরে মধ্যরাতে তেলের ডিপোতে আগুন, তিনটি দোকান ভস্মীভূত

নিজস্ব প্রতিবেদক, দুর্গাপুর

নিউজরাজশাহী.কম

প্রকাশিত : ০৮:২৯ পিএম, ১৪ অক্টোবর ২০২০ বুধবার

রাজশাহীর দুর্গাপুর সদরের বাসস্ট্যান্ড এলাকায় জ্বালানী তেলের ডিপোতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। তেলের ডিপোসহ আরো দুটি দোকান ভস্মীভূত হয়েছে বলে জানা গেছে। প্রায় দুই ঘন্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা।

গতকাল মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১টার দিকে এ অগ্নিকাণ্ডের দুর্ঘটনা ঘটে। এ সময় আগুন নেভাতে গিয়ে প্রায় ১০ জন আহত হন। এর মধ্যে খাদেমুল ইসলাম (২৮) নামের এক যুবক দগ্ধ হন।  রাতেই তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

বুধবার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মহসীন মৃধা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুর্গাপুর সদরের সিংগা বাজারের বাসস্ট্যান্ড এলাকায় আফসার আলীর তেলের ডিপোতে মেঘনা তেল কোম্পানির লরি থেকে ড্রামে পেট্রোল ভরা হচ্ছিলো। আকস্মিকভাবে সিগারেটের আগুন থেকে লরিটির তেলের পাইপে আগুন ধরে যায়। পরে অগ্নিকান্ডের ভয়াবহ হাত থেকে রক্ষা পেতে ওই ট্যাংকলরিটি একটি পুকুরে ফেলে দেওয়ার চেষ্টা করা হয়।  এ সময় মুহুর্তের মধ্যে ওই দোকান ঘরে আগুন ধরে যায় এবং দোকানে রাখা তেল পুড়ে যায়। একই সাথে পাশের ফয়সালের খড়ের দোকান ও প্রদীপের লন্ড্রি দোকান ভস্মীভূত হয়।

আফসার আলী জানান, তার দোকানে ডিজেল, কেরোসিন ও পেট্রোলের প্রায় ৫০ টি ড্রাম লোড করা ছিলো। রাতে ট্যাংকলরি থেকে ড্রামে তেল ভরা হচ্ছিল। এমন সময় আগুন ধরে যায়। এসময় দোকানে থাকা সব তেল ও ঘর পুড়ে যায়। এতে প্রায় ১২-১৫ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি।

উপজেলা ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিভেন্সের স্টেশনের ইনচার্জ আসরাফ তপু জানান, তেলের দোকানটিতে মেঘনা তেল কোম্পানির একটি লরি তেল সরবরাহের সময় সিগারেটের আগুন থেকে প্রথমে লরির পাইপে আগুন ধরে যায়। এরপরে পুরো দোকান ঘরে আগুন ধরে যায়। খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে পৌছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করা হয়।

পরবর্তীতে পুঠিয়া ইউনিটে খবর দেয়া হলে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট প্রায় দুই ঘন্টা পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। এ ঘটনায় তিনটি দোকানে প্রায় ১৫ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানান এই কর্মকর্তা।

স/এমএস