ধানের সাথে এ কেমন শত্রুতা!

নিজস্ব প্রতিবেদক, নওগাঁ

নিউজরাজশাহী.কম

প্রকাশিত : ০৭:৩৬ পিএম, ২২ অক্টোবর ২০২০ বৃহস্পতিবার

নওগাঁর তিন একর ৩৩ শতক জমির ধান রাসায়নিক পদার্থ দিয়ে পুড়িয়ে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা। এবিষয়ে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক থানায় মামলা করতে গেলে পত্নীতলা থানার ওসি থানায় মামলা না নিয়ে উপরের চাপ আছে জানিয়ে আদালতে মামলা করার পরামর্শ দেন। 

গত সোমবার রাতে জেলার পত্নীতলা উপজেলার আমাইর ইউনিয়নের ডাসনগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 
 
জমির মালিক রেজাদুল ইসলাম ও হারুন রশিদ অভিযোগ করেন, জমি নিয়ে পার্শ্ববর্তী গ্রামের মৃত আজিমউদ্দিনের ছেলে হাবিবুর রহমানের সাথে দীর্ঘদিন থেকে বিরোধ চলছিলো। এরই জেরে গত সোমবার রাতভর লোক নিয়ে এসিড জাতীয় রাসায়নিক পদার্থ ছিটিয়ে তাঁর তিন একর ৩৩ শতক জমির ধান পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। এর ফলে ধানের শিষগুলো পুড়ে নষ্ট হয়ে গেছে। এতে তাঁর প্রায় লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে তারা দাবি করেন।
 
রেজাদুল ইসলাম আরো জানান, এ বিষয়টি নিয়ে পত্নীতলা থানায় মামলা করতে গেলে ওসি সাহেব বলেন উপরের চাপ আছে। মামলা নেয়া যাবে না।  আপনারা আদালতে মামলা করেন বলে আমাদেরকে পরামর্শ দেন। 
 
তবে হাবিবুর রহমান বলেন, ধানক্ষেতে রাসায়নিক পদার্থ ছিটানোর সাথে তিনি জড়িত নন। কে বা কারা এ কাজ করেছে তাও তিনি জানেন না।
 
পত্নীতলা উপজেলার কৃষি কর্মকর্তা প্রকাশ চন্দ্র সরকার জানান, আমারা ক্ষতিগ্রস্ত জমি পরিদর্শন করেছি। উপজেলার ডাসনগর গ্রামের কৃষক রেজাদুল ইসলাম ও হারুন রশিদের তিন একর ৩৩ শতক জমির ধান ক্ষতিকর  রাসায়নিক পদার্থ দিয়ে পুড়িয়ে দেয়ার অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে উর্দ্ধতন অফিসে প্রতিবেদন প্রেরণ করা হয়েছে। 
 
পত্নীতলা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) পরিমল কুমার চক্রবর্তি  জানান, জমির ধান রাসায়নিক পদার্থ ছিটিয়ে পুড়িয়ে দেওয়ার কেন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নিয়া হবে। 
 
স/এমএস