পুঠিয়ায় আদীবাসী নারীর মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় হত্যা মামলা দায়ের

নিজস্ব প্রতিবেদক, পুঠিয়া

নিউজরাজশাহী.কম

প্রকাশিত : ০৬:৫৭ পিএম, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১ বুধবার

রাজশাহীর পুঠিয়ায় নিখোঁজের একদিন পর বাড়ির পাশ থেকে আদিবাসী নারীর মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় থানায় হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারী) রাতে অজ্ঞাতনামা আসামী করে মামলাটি দায়ের করেন নিহত নারীর মা সুরোজ হেমব্রম। মামলা নং-২৩ তারিখ-১৬-০২-২১ ইং। এর আগে গত (১৫ ফেব্রুয়ারী) সোমবার বিকেলে সে বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয় এবং (১৬ ফেব্রুয়ারী) মঙ্গলবার সকালে বাড়ি থেকে ৫০০ গজ দুরে একটি কলাবাগান থেকে তার মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। ওই নারীর নাম মেরিলা হ্যামব্রম (২৩)। সে উপজেলার ভালুকগাছি ইউনিয়নের আটভাগ আদিবাসী গ্রামের নিমাই স্বরনের স্ত্রী।

প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হয় ওই নারীকে কেউ শ্বাসরোধ করে হত্যার পর লাশ কলাবাগানে ফেলে রাখে। তবে কেন তাকে হত্যা করা হয়েছে সে ব্যপারে নিশ্চিতভাবে জানা যায়নি। মরদেহ উদ্ধারের পর আজ বুধবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়। ময়নাতদন্ত শেষে লাশ সৎকারের জন্য পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

অন্যদিকে হত্যার রহস্য উদঘাটনে পুলিশ কাজ করছে। বিষয়টি নিশ্চিত করে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল ইসলাম জানান, ওই আদীবাসী নারী গত সোমবার বিকেলে নিখোঁজ হয়। পরিবারের লোকজন সারারাত তার কোন হদিস পায়না। পরের দিন সকালে নিহত নারীর মেয়ে বাড়ি থেকে ৫০০ গজ দুরে তার মরদেহ দেখতে পায়। পরে তাৎক্ষণিক থানা পুলিশ কে খবর দিলে পুলিশ গিয়ে মরদেহের সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্তুত করে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে প্রেরন করে। নিহতের শরীরে আঘাতের চিহ্ন আছে প্রাথমিক ধারনা তাকে কেউ শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে। তবে কেন হত্যা করা হয়েছে সে ব্যপারে জানা যায়নি।

ওসি আরো জানান, এ ব্যপারে নিহত নারীর মা বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামী করে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছে। পুলিশ হত্যার রহস্য উদঘাটনে গুরুত্বের সাথে কাজ করছে বলেও জানান তিনি।