সর্বহারা পরিচয়ে ব্যাংক কর্মকর্তার কাছে ২০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক, পুঠিয়া

নিউজরাজশাহী.কম

প্রকাশিত : ০৮:৩৫ পিএম, ১৪ অক্টোবর ২০২০ বুধবার

রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলায় সর্বহারা পরিচয়ে অগ্রণী ব্যাংক বানেশ্বর শাখার ব্যবস্থাপক হাতেম আলী ও দ্বিতীয় কর্মকর্তা শহীদুল ইসলামের কাছে ২০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তারা।

গতকাল মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) ওই দুই কর্মকর্তার ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বরে কল দিয়ে এ চাঁদা দাবি করা হয়।

পরে শাখা ব্যবস্থাপকের পক্ষে দ্বিতীয় কর্মকর্তা শহীদুল বাদী হয়ে পুঠিয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন।

সাধারণ ডায়েরি সূত্রে জানা গেছে, গতকাল দুপুরে ০১৮৪২-৪০৮৫২৫ নম্বর হতে বিপ্লব সর্বহারা পরিচয়ে জনৈক ব্যক্তি ব্যাংকের ব্যবস্থাপক ও দ্বিতীয় কর্মকর্তার ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বরে ফোন দিয়ে তার বস মহিউদ্দিন শিকদারের সাথে কথা বলতে বলেন।

মহিউদ্দিন শিকদার বলেন, সে কয়েকটি খুন ও ডাকাতি করে দীর্ঘকাল ভারতে লুকিয়ে ছিলেন। পরবর্তীতে বাংলাদেশে আসেন এবং ভারতে তার কয়েকজন কর্মী চিকিৎসাধীন অবস্থায় থাকায় তাদেরকে বাঁচাতে ২০ লাখ টাকা প্রয়োজন। উক্ত টাকা না দিলে স্ত্রী-সন্তানকে অপহরণ করে টুকরা টুকরা করে বানেশ্বর বাজারে ঝুলিয়ে রাখার হুমকি দেয়।

মহিউদ্দিন শিকদার আরো বলেন, এই কথা পুলিশ ও র‌্যাবকে জানিয়ে কোনো লাভ হবে না। কারণ তারা তাদেরকে কোনো নিরাপত্তা দিতে পারবে না। এরপরও যদি পুলিশ, র‌্যাবকে জানানো হয় তাহলে তাদেরকে খতম করে ফেলা হবে বলে হুমকি দেয়। এছড়াও জনতা ব্যাংক লি. পুঠিয়া শাখায় একই ধরনের হুমকি দেয়া হয়েছে বলে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে পুঠিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রেজাউল ইসলাম জানান, বিষয়টি তদন্তাধীন রয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

স/এমএস